মেনু নির্বাচন করুন

কুমির মারা পর্যটন কেন্দ্র

বরগুনা জেলা প্রেসক্লাবের বার্ষিক ৫দিন ব্যাপি আন্দন ভ্রমন  অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ভ্রমন উপলক্ষ্যে সাংবাদিকরা বৃহস্পতিবার সকালে টুঙ্গি পাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও কুষ্টিয়া ফকির সম্্রাট লালন শাহ মাজার জিয়ারত শেষে বিশ্ব কবি রবীন্দ্র ঠাকুর এর কুটি বাড়ী, বগুড়ার প্রাচিন রাজধানী মহাস্থানগড় জাদুঘর, বেহুলা রক্ষীনধারের বাসরঘর, দিনাজপুরের স্বন পুড়ি, হিলি বন্দর হাড়ি পুকুর সহ উল্লেখ যোগ্য স্থান পরিদর্শন শেষে সোমবার বরগুনা এসে সাংবাদিকতার কাজে আত্ম নিয়োগ করেছেন। এ সময় বরগুনা জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তালুকদার মোঃ মাসউদ এর  নেতৃত্বে সঙ্গে ছিলেন সাংবাদিক হুমায়ুন কবির আলম সিকদার, মোঃ আবুল বাশার, সোহাগ সিকদার, গোবিন্দ মালাকার, গোলাম ছগির নান্না , খাইরুল ইসলাম  আকাশ, আল আমিন হোসেন পিন্টু, শাহীন মাহমুদ প্রমুখ। অতিথি ছিলেন ঢাকা থেকে সোহেল মাহমুদ, বরগুনার খাইরুল ইসলাম মিলন মেম্বর।  আনন্দ ভ্রমন শেষে সাংবাদিকরা বলেন বাংলাদেশের এ সব এলাকার মতো বরগুনা সদর উপজেলার চড় পদ্মা ও কুমির মারায় এলাকায় ডরপের প্রস্তাবিত  পর্যাটন কেন্দ্র কে একটি দেখা এবং উপভোগ করার  মতো  একটি পর্যটন কেন্দ্র তৈরী করা যায়। করন এ গুলোতে যা রয়েছে তার চেয়ে ও প্রস্তাবিত এ পর্যাটন কেন্দ্র  ভিন্ন ধর্মী দেখার ও উপভোগ করার স্থান রয়েছে। যেমন  সুর্য়্যাস্থ, বঙ্গোপসাগরের ঢেউ, বনাঞ্চল, বন্য প্রাণী, আড্ডা স্থান, খেলাধুলার মতো খোলা মাঠ সহ অনেক কিছু । সুশিল ব্যক্তিরা বলেন বরগুনার এ স্থান দুটি পিকনিক কর্নার হিসেবে পরিচিত, এখানে বিভিন্ন প্রজাতির নতুন নতুন পশু পাখি যোগ করলে বাংলাদেশের আকর্ষনীয় পর্যটন কেন্দ্রে পরিনত হতে পারে। এখান থেকে সরকার ব্যাপক রাজস্ব আয় করতে পারত। এ ব্যাপরে বরগুনা জেলা প্রশাসক  ডঃ মহাঃ বশিরুল আলম বলেন আমি নতুন এসে এখানে  যোগদান করেছি। আমি এ বিষয় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে ব্যবস্থা গ্রহন করব। 


Share with :

Facebook Twitter